আকুপ্রেসারে কিডনির চিকিৎসা

0 176

আকুপ্রেসার দ্বারা কিডনির চিকিৎসা করতে হলে কিডনিকে দ্রুত কার্যকর রূপে আনা প্রয়োজন সে ক্ষেত্রে দুটি কাজ করা জরুরি যেমন :

কালো চাঃ

প্রতিদিন সকালে প্রথমে এককাপ কালো চা খেতে হবে, কালো তৈরী করার নিয়ম হলো এক কাপ পানিতে দুচামচ চা পাতা দিয়ে জ্বাল দিয়ে অর্ধেক করতে হবে, তা ছেঁেক সেই অর্ধেক কাপ চায়ের সাথে আরো আধা কাপ পানি মিশিয়ে পান করতে হবে। এই চায়ে কোন দুধ, চিনি, মধু ব্যবহার করা যাবেনা। এই চা খেতে খুব তিতা হবে। অনেক সময় বমি বমি ভাব হতে পারে। ভয় পাওয়ার কিছু নেই একটু পর ঠিক হয়ে যাবে। এভাবে নিয়মিত দুই সপ্তাহ খেলে চা পান করলে কিডনি স্বক্রিয় হয়ে উঠবে।

২. রূপার পানিঃ

৬০গ্রাম বিশুদ্ধ রূপা, আট গ্লাস পানিতে ফুটিয়ে দুই গ্লাসে কমিয়ে আনতে হবে। এই রূপার পানি সারাদিন পান করতে হবে, এই পানি চার সপ্তাহ পান করলে কিডনি কার্যকারিতা ফিরে আসবে এবং আকুপ্রেসারের মাধ্যমে রোগ সেরে উঠবে।

প্রতিটি পয়েণ্টে প্রতিদিন দুইশো করে চাপ দিতে হবে তিন বেলা খালি পেটে। এতে কিডনির নানান রোগ প্রাকৃতিক ভাবে ঠিক হয় যাবে এবং সুস্থ থাকবে সেই সাথে অবশ্যই খাদ্যবিধি মেনে চলতে হবে এবং লবণ খাদ্য তালিকা থেকে বাদ দিতে হবে। আকুপ্রেসারের মাধ্যমে কিডনি সুস্থ্য রাখার অনেক নজির রয়েছে। এই চিকিৎসায় কোন প্রকার ঔষধ ব্যতিরিকে কিডনি সুস্থ রাখায়। কিডনি সুস্থ রাখার জন্য নিয়মিতভাবে আকুপ্রেসার করে যেতে হবে। তাতে কোন ধরণের ডায়ালায়েসিস করার প্রয়োজন হবেনা। এবং জটিল ও কঠিন কিডনির রোগীও সুস্থ হবেন কোন ধরণের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া ছাড়া প্রাকৃতিক উপায়ে।

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.