করোনা ভাইরাস ও করনীয়

0 186

নাজমীন মর্তুজা

উহানের গজব কোরনা ভাইরাস …এ ভাইরাসের নাম দিয়েছেন ‘2019 novel coronavirus (2019-nCoV)’। সংক্ষিপ্ত নাম করোনা ভাইরাস। এই ভাইরাসটি প্যাথোজেন পরিবারের। যার কারণে এর আগে নাকি সার্স ও মার্স ভাইরাসের সংক্রমণ হয়েছিল। এই রোগ বালাই গুলো আসলে আসে দল বল নিয়েই আসে । রোগ বালাই শুধু আজকাল হচ্ছে বলে এমন যুক্তি অবান্তর । আগেও গ্রাম ধ্বংস করা বিমারী আসতো দলবল নিয়ে .. গুটি বসন্ত , কলেরা , কালাজ্বর .. আরও কত কি । সেই আদিকাল থেকেই গজবের মধ্যেই তো আছে পৃথিবীর মানুষ ।

এখানে চিন কিংবা সৌদি বলে কোন কথা নাই । কোথাও দাবানল তো কোথাও বন্যা কোথাও যুদ্ধ তো কোথাও ভূমিকম্প , ভূমিধস , কোথাও কোরনা তো কোথাও ধর্মড্রামা , পারমানবিক বোমা , রাজনৈতিক কুটচাল , সারা পৃথিবীটাই একটা অস্থির গোলক যেন !

অষ্ট্রেলিয়ার ভয়াবহ দাবানলের পর চিনের উহান এখন করোনা ভাইরাসের কবলে । উহান শহরে ২৩ জানুয়ারি সকাল ১০টা থেকে ২৯ জানুয়ারি রাত ১২টা পর্যন্ত অন্যান্য প্রদেশ ও অঞ্চল থেকে উহান শহরে গেছেন ১ লাখ ২৩ হাজার ৮০০ লোক। এর মধ্যে ৩ হাজার ৭০০ জনেরও বেশি চিকিৎক ও নার্স।
জানা যায়, আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসার জন্যে উহান শহরে খুব দ্রুত একটি হাসপাতালও নির্মাণ করা হচ্ছে।

কর্মকর্তারা বলছেন, মাত্র ১০ দিনে তৈরি এই হাসপাতালটি হয়তো সোমবারই খুলে দেয়া হবে। চীনে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ২,০০০ জন। গত ডিসেম্বরে উহান শহর থেকে মহামারী আকারে ছড়িয়ে পড়ে করোনা ভাইরাস। চীন ও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার তথ্য অনুযায়ী পুরো বিশ্বে করোনা ভাইরাসে এখন পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছেন ১৪,৩৮০ জন। এর বেশিরভাগই চীনের। চীনের বাইরেও ২১টি দেশে এ ভাইরাসে ১০০ জন আক্রান্ত হয়েছেন। ধারণা করা যায় এ কোন বিমারি ! ধ্বংস মানুষের এতো সহজে হবে না এটা নিশ্চিত হাসপাতালের মতোই জলদি টিকা র আবিষ্কার করলে বলে .. চিন । কোরনা ভাইরাস এটি অনেকটা সার্স ভাইরাসের মতো মানুষের মৃত্যু ডেকে আনছে।ভাইরাসটি নিউমোনিয়া ধরনের অসুস্থতা সৃষ্টি করে এবং তারপর অ্যান্টিবায়োটিক চিকিৎসায় সাড়া দেয় না। ভাইরাসটিতে সংক্রমণের লক্ষণ হচ্ছে সর্দি, কাশি, গলাব্যথা, শ্বাসকষ্টজনিত সমস্যা। এছাড়া জ্বর ও মাথাব্যথাও হতে পারে। এসব সমস্যা কয়েকদিন পর্যন্ত স্থায়ী হতে পারে।

দুর্বল ইমিউন সিস্টেমের মানুষ, বয়স্ক ও শিশুদের এই ভাইরাসে নিউমোনিয়া বা ব্রঙ্কাইটিসের মতো শ্বাসনালীর সমস্যায় আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা অনেক বেশি।নতুন করোনা ভাইরাসগুলোর বিরুদ্ধে সুরক্ষার জন্য কোনো ভ্যাকসিন নেই। অন্তত এখন পর্যন্ত তৈরি হয়নি। মার্স ভাইরাসের ভ্যাকসিন নিয়ে ক্লিনিক্যাল পরীক্ষা চলছে। যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় স্বাস্থ্য ইনস্টিটিউট নতুন করোনা ভাইরাসটির ভ্যাকসিন তৈরিতে কাজ করছে। কিন্তু ক্লিনিক্যাল পরীক্ষা-নিরীক্ষা সম্পন্ন করে ভ্যাকসিন নিয়ে আসতে এক বছরেরও বেশি সময় লেগে যেতে পারে। লে হালুয়া এতো সময় লাগলে তো মানুষ পোকার মতো মরবে ।

তবে সচেতনতার উপরে কোন টিকা নাই , সচেতন থাকাটাই মূল বিষয়। হাঁচি ও কাশি দেওয়ার সময় নাক ও মুখ ঢেকে রাখুন। বাইরে বেরোনোর সময় মাস্ক ব্যবহার করুন। পোষা প্রাণি করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হতে পারে এবং সংক্রমণ তীব্র আকার ধারণ করতে পারে। অনেক সময় এটি মানুষের জন্যও প্রাণঘাতী রোগের কারণ হতে পারে।গাছের ফল ধুয়ে খাওয়া উচিত ।
চলুন ‘নোবেলা করোনা’ ভাইরাসের উপসর্গ গুলো জেনে রাখি ।

অনেকেই জানি না , এমন মানুষও আছে করোনা মাথায় দেয় না খায় সেটাও বুঝতে পারে না । এটা গজব না গুজব এই নিয়ে চিন্তা করতে করতেই দেখা গেছে অসচেতন অবস্থায় কোরনা রুগিকে দেখতে চলে গেছে , প্রটেকশন ছাড়াই .. ব্যাগ ভর্তি ফল নিয়ে ।

চলুন বন্ধুরা নোবেলা কোরনার উপসর্গ গুলো জানি –
• করোনা হল কমন রেসপিরেটরি ভাইরাস ইনফেকশন।
• করোনাভাইরাসের অনেক রকম প্রজাতি আছে, কিন্তু এর মধ্যে মাত্র ৭টি মানুষের দেহে সংক্রমিত হতে পারে।
• মূলত জন্তু জানোয়ারের থেকে নোবেলা করোনা প্রকৃতির এই ভাইরাস থেকেই করোনা ভাইরাস সংক্রমণ হচ্ছে।
• দেখা যাচ্ছে মাছ থেকে এবং মাছের বাজার থেকে এই সংক্রমণের উৎপত্তি।
• ভাইরাল ইনফেকশনে মানুষ যেভাবে সর্দি, কাশি, জ্বরে আক্রান্ত হয় এই ভাইরাসেও তেমনই লক্ষণ দেখা যায় এবং এর থেকে হয় নিউমোনিয়া। যার থেকে প্রবল শ্বাসকষ্ট হয়। এমনকী ফুসফুসেও পানি জমে।
• এই ভাইরাসের মোকাবিলায় অ্যান্টিবায়োটিক কাজ করে না।
• পশুর লোম এবং মল থেকেও সংক্রমণের আশঙ্কা।
• মানুষের শরীর থেকেও পশুদের দেহে এর সংক্রমণ ঘটে।
• করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হাঁচি দিলে বা কাশলেও তা ছড়িয়ে পড়ার সম্ভাবনা থাকে।
• কথা বলার মতো দূরত্ব, হ্যান্ডশেক করার মতো দূরত্ব থেকেও করোনা ভাইরাস একজনের থেকে অন্যের শরীরে প্রবেশ ঘটায়।
• করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের চশমা অন্যজন ব্যবহার করলে তা থেকে সংক্রমণের আশঙ্কা রয়েছে।
• ডায়ালেসিসে থাকা রোগীর থেকে ক্যান্সারে আক্রান্ত বা কিডনি বা লিভারের অসুখে ভুক্তভোগীদের খুব সহজেই কাত করে দিতে পারে এই করোনা ভাইরাস । যা থেকে মৃত্যু পর্যন্তও হতে পারে।
এজন্যই সব গনমাধ্যম বিশেষ সংবাদে কেবল একটি কথাই বলছেন সচেতনতা জরুরী ।
নিজে সচেতন হই এবং অন্যকে জানিয়ে দেই ।
আমার কাজ আমি করেছি আপনার টা আপনি করুন ।

তথ্যসুত্র – বিভীন্ন সংবাদ মাধ্যম থেকে পাওয়া ।

ছবিতে সবুজ সুন্দরীর নাম কিন্তু নোবেলা কোরনা।

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.