ক্ষুধায় ভুলেও যা খাবেন না

0 47

নিত্যদিনের ব্যস্ত সময়ে সময়মতো খাওয়াও হয়ে ওঠে না অনেক সময়। হুটহাট ক্ষুধা লাগার সময়ও যেন বেশ এলোমেলো। তাই হাতের কাছে যা মেলে, তা দিয়ে চলে ক্ষুধা নিবারণের চেষ্টা। তবে ক্ষুধা লাগলেও কিছু খাবার খাওয়া উচিত নয়। চলুন জেনে নিই সেই খাবারগুলো সম্পর্কে

ঝাল বা মসলাযুক্ত খাবার : ক্ষুধা লাগলেও সব সময় ঝাল বা মসলাযুক্ত খাবার খাওয়া উচিত নয়। এতে হজমের সমস্যা তৈরি হতে পারে। এ ছাড়া পাকস্থলীতে সরাসরি প্রভাব পড়তে পারে। ঝাল খাবার খাওয়ার আগে দুধ অথবা দই খেয়ে নিতে পারেন অল্প একটু। এতে ঝালের প্রভাব সরাসরি পাকস্থলীতে পড়বে না।

ফল : ফল খাওয়ার সঠিক সময় হচ্ছে মূল খাবার খাওয়ার আধা ঘণ্টা পর। আপেল বা কলা খেলে হয়তো শক্তির সঞ্চয় হয়, তবে বেশি সময় এই ফল খেয়ে থাকাও যায় না। ফলের সঙ্গে প্রোটিনজাতীয় কোনো একটি খাবার খাওয়া উচিত। এ ছাড়া কয়েকটি বাদাম বা পনির খেলেও ভালো লাগবে। কমলা খেতে ভালো লাগলেও ক্ষুধা পেটে খেলে এসিডিটি হতে পারে।

কফি : খালি পেটে এক কাপ কফিতেও এসিডিটির প্রবল সম্ভাবনা থাকে। ক্ষুধা লাগলে বানিয়ে নিতে পারেন হালকা সবজির সালাদ। খেতে পারেন সেদ্ধ ডাল অথবা মসলাযুক্ত মুরগির মাংসও।

চিপস : ক্ষুধা পেলে অনেকেই এক প্যাকেট চিপস খেয়ে নেন। তবে এটি দ্রুত হজম হয়ে ক্ষুধাভাব ফের ফিরে আসতে পারে। এ ক্ষেত্রে ২৫০-৩০০ ক্যালরির যেকোনো খাবার (স্যান্ডউইচ বা কেক) খেয়ে নিলে ভালো থাকবে স্বাস্থ্য, সুস্থ থাকবেন আপনি।

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.